Wednesday, 30 November 2022

ভোগ্যপণ্যের গায়ে যোগ হলো বাড়তি ভাড়া

Editor: CanBangla
Tuesday, 09 August 2022 164

অনলাইন ডেস্ক : জ্বালানি তেলের বাড়তি দামের কারণে বেড়েছে পণ্যবাহী ট্রাক ও কাভার্ডভ্যানের ভাড়াও। সেটির প্রভাব পড়েছে ভোগ্যপণ্যের দামের ওপর। ইতোমধ্যে দেশের বৃহত্তর পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জে প্রতিটি ভোগ্যপণ্যের দাম কেজিতে ৫-২০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। ব্যবসায়ীরা বলছেন, জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির কারণে ট্রাক ও কাভার্ডভ্যানের ভাড়া এখন দ্বিগুণ বেড়েছে। এ ছাড়া আন্তর্জাতিক বাজারে ভোগ্যপণ্যের বুকিং দর কমলেও দেশের অভ্যন্তরে ডলারের দাম বেড়ে যাওয়ায় আমদানি ব্যয়ও বেড়েছে। তাই ভোগ্যপণ্যের দাম বাড়ছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, আগে সিলেট থেকে খাতুনগঞ্জে ১৩ টনের ট্রাক ভাড়া ছিল ১৭ হাজার টাকা। এখন ২৬ হাজার টাকা। আগে ১৩ টনের একটি ট্রাক টেকনাফ স্থলবন্দর থেকে খাতুনগঞ্জে ভাড়া ছিল ২৭ হাজার টাকা। এখন সেটি ৩২ হাজার। বেনাপোল বন্দর থেকে খাতুনগঞ্জে ট্রাকপ্রতি ভাড়া ছিল ৩৩ হাজার টাকা। এখন ৩৯ হাজার টাকা। এ ছাড়া নওগাঁ, দিনাজপুর, ময়মনসিংহ, আশুগঞ্জ, হবিগঞ্জসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে চট্টগ্রামে পণ্যবাহী ট্রাক আসে। এসব ট্রাক-কাভার্ডভ্যানের ভাড়া গড়ে ৫ থেকে ৮ হাজার টাকা পর্যন্ত বেড়েছে।

গতকাল সোমবার সকালে খাতুনগঞ্জের পাইকারি বাজারে সরোজমিনে গিয়ে দেখা যায়, দুই দিন আগেও চিনি বিক্রি হয়েছিল প্রতিকেজি ৭৫ টাকা। এখন ৭৯ টাকা। পেঁয়াজের কেজি ২৮ টাকা থেকে বেড়ে ৩৩ টাকা। আদার কেজি ৬২ টাকা, সেটা ৫টাকা বেড়েছে।

রসুন ৯৫ থেকে ১০০ টাকা, শুকনো মরিচ ১২ টাকা বেড়ে এখন ৩৪২ টাকা, মসুর ডাল ৮৯ থেকে ৯৩ টাকা, মটর ডাল ৩ টাকা বেড়ে এখন ৫৯ টাকা, হলুদ আগে ছিল ১১২ টাকা, এখন ১২০ টাকা। এলাচ ২০ টাকা বেড়ে এখন কেজি ৩০০ টাকা, জিরার দাম বেড়েছে ৬ টাকা, এখন ৪৩৬ টাকা, দারুচিনি কেজিতে বেড়েছে ১১ টাকা, এখন ৩১১ টাকা। লবঙ্গও একই হারে বেড়েছে। এখন দাম ১ হাজার ১৫২ টাকা।

চাক্তাই খাতুনগঞ্জ আড়তদার সাধারণ ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মহিউদ্দিন বলেন, জ্বালানি তেলের বাড়তি দাম পণ্যবাহী পরিবহনে প্রভাব পড়বে- এটা তো স্বাভাবিক ঘটনা। এখন ডলারের বাড়তি দামও যুক্ত হয়েছে। যে ট্রাক আমরা ২১-২২ হাজার টাকায় ভাড়া করতাম, সেটি এখন ভাড়া করতে হবে ২৬-২৭ হাজার টাকায়। সেটার প্রভাব ভোগ্যপণ্যের গায়েও লাগছে।

খাতুনগঞ্জ ট্রেড এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ ছগীর আহমদ বলেন, বাড়তি জ্বালানি তেলের দাম পণ্য পরিবহন খাতেও পড়েছে। অনেক চালক এখন পণ্য পরিবহন করছেন না। গত দুই দিনে খাতুনগঞ্জে মাত্র হাতেগোনা কয়েকটি ট্রাক প্রবেশ করেছে। এখন খাতুনগঞ্জে বিক্রিও কমেছে। তিনি বলেন, তেলের দাম সমন্বয় না করলে পণ্যের দাম বাড়তে থাকবে।

বাংলাদেশ কাভার্ডভ্যান ট্রাক প্রাইম মুভার পণ্য পরিবহন মালিক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক আরিফুর রহমান রুবেল বলেন, আগে ১৫ শতাংশ জ্বালানি খরচ বাড়লেও আমরা ভাড়া বৃদ্ধি করিনি। এখন ৩৪ শতাংশ বেড়েছে। তাই এবার আমরা ৫১ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধি করেছি। আমাদেরও তো বাঁচতে হবে।

ক্যাব চট্টগ্রাম বিভাগীয় সভাপতি এসএম নাজের হোসাইন বলেন, তেলের দাম বৃদ্ধির সাথে সাথেই বাজারে কিন্তু এর প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। ব্যবসায়ীরা তাদের স্বভাবসুলভ পণ্যের দাম বাড়িয়ে দেবেন। মাঝখানে খরচের চাকায় পিষ্ট হবেন ক্রেতারা। এটাই সবসময় হয়ে আসছে। তিনি বলেন, সাধারণ জনগণের কথা চিন্তা করে যেন ভোগ্যপণ্যের বাজারে অভিযান চালানো হয়। কারণ ব্যবসায়ীরা একেক সময় একেক অজুহাতে পণ্যের দাম বৃদ্ধি করেন। তাদের অজুহাতের শেষ নেই।